মাসিক চক্র বলতে কোন এক মাসে মাসিকের প্রথম দিনের তারিখ থেকে পরবর্তী মাসে মাসিকের প্রথম দিনের তারিখের মধ্যবর্তী সময়কালকে বোঝায়। এর গড় সময়কাল সাধারণত ২৮ দিন হয়ে থাকে। তবে ক্ষেত্র বিশেষে মাসিক চক্রের সময়কাল ভিন্ন হতে পারে। যেমনঃ তা প্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে ২১ থেকে ৩৫ দিন আবার কিশোরীদের ক্ষেত্রে এই সময়কাল ২১ থেকে ৪৫ দিনের মধ্যে হয়ে থাকে। চক্রটি নিয়মিত হতে মাসিক প্রথমবার শুরুর পর ২ বছর পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে।

নিয়মিত মাসিক চক্র সম্পন্ন হলে বলা যায় যে, শরীরের গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলো সঠিক ও স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় কাজ করছে। এই মাসিক চক্রের মাধ্যমেই শরীরের হরমোনের কার্যকারিতা নিশ্চিত হয় এবং শরীর সুস্থ থাকে। কেননা পুরো মাসিক চক্র নিয়ন্ত্রিত হয় হরমোনের তারতম্যের ওপর নির্ভর করে। নিয়মিত মাসিক চক্রের মাধ্যমে নারীদেহ সন্তানধারণের জন্য ধীরে ধীরে প্রস্তুত হয়।

তবে মাসিক শুরু হওয়া মানেই মানসিক ও শারীরিকভাবে কিশোরী মেয়েটির সন্তান ধারণের উপযোগী হয়ে ওঠা নয়।

মাসিক চক্রের সময়সূচি থেকে অস্বাভাবিক কিছু ঘটলে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

 

তথ্য উৎসঃ

https://www.womenshealth.gov

http://www.merckmanuals.com

কমেন্ট করুন

আপনার ইমেইল অ্যাড্রেসটি প্রকাশ করা হবে না